ঢাকা ০১:৩৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পরিবর্তনের জন্য একটা ঝাঁকুনি দরকার, যুদ্ধ দরকার: ফখরুল

আমার প্রাণের বাংলাদেশ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০৭:০৬:৫৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৩ অগাস্ট ২০২৩ ২৫৯ বার পঠিত

ক্ষমতাসীন দলের সমালোচনা করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আওয়ামী লীগের সবচেয়ে বড় সমস্যা তারা নিজেদের এই দেশের মালিক মনে করে। বিশেষ করে একজন ব্যক্তি এবং একটি পরিবার এমনটি ভাবছে। এ অবস্থার পরিবর্তন করতে হবে। পরিবর্তন চাইলে বড় রকমের একটা ঝাঁকুনি দরকার, যুদ্ধ দরকার। সুনামির মতো অভ্যুত্থান তৈরি করে সরকারকে সরাতে হবে।

পরিবর্তনের জন্য তরুণদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে সাবেক শিক্ষক মির্জা ফখরুল বলেন, পরিবর্তন যদি আনতে হয় তরুণরা ছাড়া সম্ভব নয়। আজকে লড়াই, সংগ্রাম, যুদ্ধ— সবই করতে হবে তরুণদের। আমার কষ্ট হয়, যখন কোনো নারী শিক্ষার্থী ধর্ষণের শিকার হয়, তখন তার ক্যাম্পাস, সহকর্মী তরুণরা কোনো আন্দোলন করে না। আমরা কিন্তু পাকিস্তান আমলে আন্দোলন করেছিলাম। কিন্তু এখনকার তরুণদের মধ্যে তা দেখি না।

তিনি বলেন, এক তরুণকে জিজ্ঞেস করেছিলাম বড় হয়ে কী হতে চাও? তখন সে বলে রাজনীতিবিদ হতে চাই। কেন? এখানে অনেক টাকা! সত্যিই তাই বলে এখনকার সময়। কী পর্যায়ে গেছে তরুণদের ভাবনা।

গণঅধিকার পরিষদ একাংশের সভাপতি নুরুল হক নূরের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীরপ্রতীক, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, জাতীয় দলের চেয়ারম্যান এহসানুল হুদা, জাতীয় পার্টির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব আহসান হাবিব লিংকন, এনপিপির চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট ফরিদুজ্জামান ফরহাদ প্রমুখ।

 

ট্যাগস :

পরিবর্তনের জন্য একটা ঝাঁকুনি দরকার, যুদ্ধ দরকার: ফখরুল

আপডেট সময় : ০৭:০৬:৫৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৩ অগাস্ট ২০২৩

ক্ষমতাসীন দলের সমালোচনা করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আওয়ামী লীগের সবচেয়ে বড় সমস্যা তারা নিজেদের এই দেশের মালিক মনে করে। বিশেষ করে একজন ব্যক্তি এবং একটি পরিবার এমনটি ভাবছে। এ অবস্থার পরিবর্তন করতে হবে। পরিবর্তন চাইলে বড় রকমের একটা ঝাঁকুনি দরকার, যুদ্ধ দরকার। সুনামির মতো অভ্যুত্থান তৈরি করে সরকারকে সরাতে হবে।

পরিবর্তনের জন্য তরুণদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে সাবেক শিক্ষক মির্জা ফখরুল বলেন, পরিবর্তন যদি আনতে হয় তরুণরা ছাড়া সম্ভব নয়। আজকে লড়াই, সংগ্রাম, যুদ্ধ— সবই করতে হবে তরুণদের। আমার কষ্ট হয়, যখন কোনো নারী শিক্ষার্থী ধর্ষণের শিকার হয়, তখন তার ক্যাম্পাস, সহকর্মী তরুণরা কোনো আন্দোলন করে না। আমরা কিন্তু পাকিস্তান আমলে আন্দোলন করেছিলাম। কিন্তু এখনকার তরুণদের মধ্যে তা দেখি না।

তিনি বলেন, এক তরুণকে জিজ্ঞেস করেছিলাম বড় হয়ে কী হতে চাও? তখন সে বলে রাজনীতিবিদ হতে চাই। কেন? এখানে অনেক টাকা! সত্যিই তাই বলে এখনকার সময়। কী পর্যায়ে গেছে তরুণদের ভাবনা।

গণঅধিকার পরিষদ একাংশের সভাপতি নুরুল হক নূরের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীরপ্রতীক, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, জাতীয় দলের চেয়ারম্যান এহসানুল হুদা, জাতীয় পার্টির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব আহসান হাবিব লিংকন, এনপিপির চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট ফরিদুজ্জামান ফরহাদ প্রমুখ।