ঢাকা ১২:২৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

জাতীয় দলের সব ম্যাচ খেলবেন জামাল

আমার প্রাণের বাংলাদেশ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০৯:০৫:১৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২১ অগাস্ট ২০২৩ ১৪৭ বার পঠিত

আর্জেন্টিনার তৃতীয় বিভাগের দলে নাম লিখিয়ে ফুরফুরে মেজাজে বুয়েনোস আইরেসে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। ঢাকা থেকে ফোন গেলে মন চাইলে ধরছেন, না ভালো লাগলে ধরছেন না। গাড়িতে বসে সিটবেল্ট বেঁধে ভিডিওকলে দেখাচ্ছেন জামালের পাশে ড্রাইভিং সিটে, তিনি একজন কর্মকর্তা। একটি প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী। সে-ও হাত নেড়ে শুভেচ্ছা জানাল। জামাল দেখাচ্ছেন তিনি কোথায় যাচ্ছেন, কী করছেন। হাজার হাজার কিলোমিটার দূর থেকে এসব দেখে অনুমান করা যায় আর্জেন্টিনার মাটিতে ফুটবল খেলাটা ছিল জামালের একটা স্বপ্ন। তৃতীয় বিভাগের দল হলেও জামাল ভূঁইয়ার আত্মতৃপ্তি, ‘আমি আর্জেন্টিনায় খেলছি।’ পনের মাসের চুক্তিতে গিয়েছেন জামাল। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগের নতুন মৌসুমে খেলার সুযোগ নেই। তারও আগ্রহ নেই। বাংলাদেশ জাতীয় দলে খেলবেন বলে জানিয়েছেন, ‘আমি জাতীয় দলে খেলব। খুব শিগিগরই ঢাকায় ফিরব। আশা করছি ২৯ আগস্ট ঢাকায় যাব।’ জাতীয় দলের ম্যাচ আফগানিস্তানের বিপক্ষে। ফিফা প্রীতি ম্যাচ দুটি ৪ এবং ৭ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। সেই দুটি ম্যাচও খেলবেন বলে জানিয়েছেন জামাল। ‘আমার সঙ্গে কোচের কথা হয়েছে। আমি খেলব। এখানে (আর্জেন্টিনায়) আমি অনুশীলনেই থাকব। অনুশীলনের আধুনিক সুযোগসুবিধা রয়েছে, যা আমি সহজেই ব্যবহার করতে পারছি। ফিটনেস ধরে রাখতে আর্জেন্টিনার ক্লাবের সব সুবিধা আমি নিতে পারছি’, বললেন জামাল। বিশ্বকাপ বাছাইয়ে বাংলাদেশের ম্যাচ মালদ্বীপের বিপক্ষে।’ জামাল বলনে, ‘হ্যাঁ আমি জানি ঐ ম্যাচও খেলব। আমি এখন জাতীয় দলের ম্যাচই খেলব।’ জামালের ক্লাব সোল দ্য মায়োর ম্যাচ আছে ১১, ১৬, ২২, ৩০ সেপ্টেম্বর। তাহলে কীভাবে জামাল আর্জেন্টিনা থেকে এসে ম্যাচ খেলবে আবার চলে যাবে সেখানে। এত লম্বা পথ। ভ্রমণ ক্লান্তি থাকবে, আমি পারব। আমি তোমার মতো নাকি। সমস্যা হবে না, বললেন বাংলাদেশ অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া। শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের সঙ্গে চুক্তি হয়েছিল কি না, এক মাসের বেতন বকেয়া রয়েছে-এসব প্রশ্নে জামাল বলেন, শেখ রাসেলের সঙ্গে আমি চুক্তি করিনি। বাফুফে থেকে চুক্তির যেসব ফরম দেওয়া হয়েছে সেই কাগজে  আমি সই করিনি।’ আর বকেয়া বেতন? ‘বেতন পেয়ে গিয়েছি। কোনো বকেয়া নেই।’ দেখো এখন বলছেন বকেয়া নেই পরে বলবেন বকেয়া রয়েছে আমাকে দিচ্ছে না। এমন কিছু হবে নাকি ? জামাল, ‘না না। সবঠিক আছে।’

ট্যাগস :

জাতীয় দলের সব ম্যাচ খেলবেন জামাল

আপডেট সময় : ০৯:০৫:১৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২১ অগাস্ট ২০২৩

আর্জেন্টিনার তৃতীয় বিভাগের দলে নাম লিখিয়ে ফুরফুরে মেজাজে বুয়েনোস আইরেসে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। ঢাকা থেকে ফোন গেলে মন চাইলে ধরছেন, না ভালো লাগলে ধরছেন না। গাড়িতে বসে সিটবেল্ট বেঁধে ভিডিওকলে দেখাচ্ছেন জামালের পাশে ড্রাইভিং সিটে, তিনি একজন কর্মকর্তা। একটি প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী। সে-ও হাত নেড়ে শুভেচ্ছা জানাল। জামাল দেখাচ্ছেন তিনি কোথায় যাচ্ছেন, কী করছেন। হাজার হাজার কিলোমিটার দূর থেকে এসব দেখে অনুমান করা যায় আর্জেন্টিনার মাটিতে ফুটবল খেলাটা ছিল জামালের একটা স্বপ্ন। তৃতীয় বিভাগের দল হলেও জামাল ভূঁইয়ার আত্মতৃপ্তি, ‘আমি আর্জেন্টিনায় খেলছি।’ পনের মাসের চুক্তিতে গিয়েছেন জামাল। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগের নতুন মৌসুমে খেলার সুযোগ নেই। তারও আগ্রহ নেই। বাংলাদেশ জাতীয় দলে খেলবেন বলে জানিয়েছেন, ‘আমি জাতীয় দলে খেলব। খুব শিগিগরই ঢাকায় ফিরব। আশা করছি ২৯ আগস্ট ঢাকায় যাব।’ জাতীয় দলের ম্যাচ আফগানিস্তানের বিপক্ষে। ফিফা প্রীতি ম্যাচ দুটি ৪ এবং ৭ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। সেই দুটি ম্যাচও খেলবেন বলে জানিয়েছেন জামাল। ‘আমার সঙ্গে কোচের কথা হয়েছে। আমি খেলব। এখানে (আর্জেন্টিনায়) আমি অনুশীলনেই থাকব। অনুশীলনের আধুনিক সুযোগসুবিধা রয়েছে, যা আমি সহজেই ব্যবহার করতে পারছি। ফিটনেস ধরে রাখতে আর্জেন্টিনার ক্লাবের সব সুবিধা আমি নিতে পারছি’, বললেন জামাল। বিশ্বকাপ বাছাইয়ে বাংলাদেশের ম্যাচ মালদ্বীপের বিপক্ষে।’ জামাল বলনে, ‘হ্যাঁ আমি জানি ঐ ম্যাচও খেলব। আমি এখন জাতীয় দলের ম্যাচই খেলব।’ জামালের ক্লাব সোল দ্য মায়োর ম্যাচ আছে ১১, ১৬, ২২, ৩০ সেপ্টেম্বর। তাহলে কীভাবে জামাল আর্জেন্টিনা থেকে এসে ম্যাচ খেলবে আবার চলে যাবে সেখানে। এত লম্বা পথ। ভ্রমণ ক্লান্তি থাকবে, আমি পারব। আমি তোমার মতো নাকি। সমস্যা হবে না, বললেন বাংলাদেশ অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া। শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের সঙ্গে চুক্তি হয়েছিল কি না, এক মাসের বেতন বকেয়া রয়েছে-এসব প্রশ্নে জামাল বলেন, শেখ রাসেলের সঙ্গে আমি চুক্তি করিনি। বাফুফে থেকে চুক্তির যেসব ফরম দেওয়া হয়েছে সেই কাগজে  আমি সই করিনি।’ আর বকেয়া বেতন? ‘বেতন পেয়ে গিয়েছি। কোনো বকেয়া নেই।’ দেখো এখন বলছেন বকেয়া নেই পরে বলবেন বকেয়া রয়েছে আমাকে দিচ্ছে না। এমন কিছু হবে নাকি ? জামাল, ‘না না। সবঠিক আছে।’